করোনার ভ্যাকসিন আনতে চায় চীন

এ বছরের শেষ নাগাদ প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন বাজারে আনতে চায় চীন।দেশটির সরকারি সম্পদ তদারকি ও প্রশাসন কমিশন (এসএএসএসি) শুক্রবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম দেয়া এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, চীনের উহানের ইনস্টিটিউট অব বায়োলজিক্যাল প্রোডাক্টস এবং বেইজিং ইনস্টিটিউট অব বায়োলজিক্যাল প্রোডাক্ট যৌথভাবে করোনার ভ্যাকসিনটি তৈরি করেছে।

ইতোমধ্যেই দুই হাজারের বেশি মানুষের শরীরে ভ্যাকসিনটি পরীক্ষামূলকভাবে প্রয়োগ করা হয়েছে।

গত শুক্রবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম উইচ্যাটে একটি বিবৃতিতে চীনের সরকারি সম্পদ তদারকি ও প্রশাসন কমিশনের পক্ষ থেকে বলা হয়, বছরের শেষের দিকে অথবা ২০২১ সালের শুরুতে বাজারজাত করার জন্য একটি ভ্যাকসিন প্রস্তুত হতে পারে।

উহান ইনস্টিটিউট অব বায়োলজিক্যাল প্রোডাক্টস এবং বেইজিং ইনস্টিটিউট অব বায়োলজিক্যাল প্রোডাক্টের তৈরিকৃত করোনা ভ্যাকসিন ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের দ্বিতীয় ধাপে রয়েছে। দেশটির সরকারি ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানি সিনোফার্মের সহযোগী এ দুই প্রতিষ্ঠানকে দেখাশোনা করছে এসএএসএসি।

বিবৃতিতে এসএএসএসির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, বছরে ১০ থেকে ১২ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন তৈরির সক্ষমতা রয়েছে বেইজিং ইনস্টিটিউট অফ বায়োলজিক্যাল প্রোডাক্টসের।

Related Post