ম্যাচের রঙ ফিকে

মুমিনুল এবং বাংলাদেশের শক্তিশালী প্রথম ইনিংস গড়ার আশা ভারতের বোলাররা চুরমার করে দিয়েছিল সকালেই। ইশান্ত ও উমেশ নতুন বলে সফরকারীদের ৩১/৩-এ নামিয়ে আনে। ম্যাচের রঙ তখন থেকেই ফিকে।

অধিনায়ক মুমিনুলের সঙ্গে মুশফিকের ৬৮ রানের জুটি বাংলাদেশকে পুনরায় উজ্জীবিত করলেও তা আর বেশি দূর এগোয়নি। মধ্যাহ্নভোজনের পর ম্যাচটি অবশ্য ‘শামী শো’ হয়ে যায়। এই পেসার একের পর এক ফেরান মুশফিক ও মেহেদীকে। সবশেষে ১৫০ রান নিয়ে পাল্টা আক্রমণের জন্য মাঠে নামে মুমিনুলরা।

জবাবে রোহিতকে তাড়াতাড়ি ফেরালেও এই আনন্দ স্থায়ী হলো না বাংলাদেশের। ২৪ ওভারে আবু জায়েদের করা ৩য় বলে মায়াঙ্কের ব্যাট ছুঁয়ে প্রথম স্লিপে দাঁড়িয়ে থাকা ইমরুলের হাতে পৌঁছে। কিন্তু সহজ সেই সুযোগটি ইমরুলের হাতগলিয়ে বের হয়ে যায়। দিন শেষে ভারতের সংগ্রহ এক উইকেটে ৮৬ রান। বাংলাদেশের পক্ষে একমাত্র উইকেট নিয়েছেন আবু জায়েদ।
অপরদিকে, পূজারা এবং মায়াঙ্ক ড্রেসিংরুমে ভারতের কোচ রবি শাস্ত্রীর কাছ থেকে বজ্রধ্বনিতে প্রশংসা পেলেন। কেননা দিনটা তো তাদেরই ছিল।

Related Post